মধ্যবিত্ত্বের সিএনজিতে চলাফেরা করা সাধ্যের বাইরে

সিএনজি চালিত অটোরিক্সা এখন মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরে। চাইলেই সিএনজি পাচ্ছেন না নগরবাসী। এজন্য গুনতে হয় অতিরিক্ত অর্থ। সিএনজি চালকদের দাবি, অতিরিক্ত জমা আদায়ের কারণেই নির্ধারিত ভাড়ায় চলতে পারেন না তারা। তাই অতিরিক্ত জমা আদায় বন্ধসহ ১০ দফা দাবি আদায়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ঢাকা সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ।

রাজধানীতে বৈধ সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করে প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার। এর বাইরেও প্রায় ২৫ হাজার অটোরিক্সা রাজধানীতে যাত্রী পরিবহন করে। যেগুলো আসে ঢাকার আশপাশের জেলা থেকে। তারপরও সহজে মিলে না সিএনজি অটোরিক্সা।

অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং মিটারে যেতে না চাওয়ার অভিযোগ যাত্রীদের। তবে চালকরা বলছেন ভিন্ন কথা।

চালকদের দাবি, ট্রাফিক সর্জেন্টের হয়রানি বন্ধ করাসহ সরকারের নেয়া পদক্ষেপগুলো বাস্তবায়ন করা হোক।

কাগজপত্র ঠিক থাকলে কোন ধরনের হয়রানির মুখোমুখি হবেন না চালকরা, এমনটাই জানিয়েছে ট্রাফিক বিভাগ।

চালকদের মধ্যে সিএনজি বরাদ্দ দেয়া, অবৈধ অটোরিক্সা বন্ধ এবং অতিরিক্ত জমা আদায়কারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে এখাতে শৃংখলা ফিরবে, এমনটাই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment