সুযোগ থাকলেও সেবা নেই সাতক্ষীরা মেডিকেলে

অবকাঠামোগত সব সুযোগ থাকার পরও সেবা মিলছে না সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। জনবল সংকটের কারণে চালু করা যাচ্ছে না জরুরি বিভাগও। টেকনিসিয়ানের অভাবে স্থাপন করা যাচ্ছে না বিভিন্ন সরঞ্জাম। এ কারণে কাঙ্খিত সেবা না পেয়েই বাড়ি ফিরছেন রোগীরা। একই কারণে ইন্টার্ণ ডাক্তাররাও ব্যবহারিক শিক্ষায় পূর্ণতা পাচ্ছেন না।

২০১১-২০১২ শিক্ষাবর্ষে ১৩ জন শিক্ষক ও ৫২ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ। ভাড়া বাড়িতে কলেজটির জন্ম হলেও পরে শহরের অদূরে বাঁকালে গড়ে ওঠে মেডিকেল কলেজ ও ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের অবকাঠামো। এরইমধ্যে তিনটি ব্যাচ এমবিবিএস শিক্ষা শেষ হয়েছে। তবে বাস্তব অভিজ্ঞতা অর্জনে জরুরি বিভাগে ইন্টার্ন ডাক্তারদের দায়িত্ব পালন করতে না পারায় শিক্ষায় থেকে যাচ্ছে ঘাটতি। জরুরি বিভাগ এবং পূর্নাঙ্গ কার্যক্রম চালুর দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন ইন্টার্ন চিকিৎসকরা।

হাসপাতালে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সরঞ্জাম বরাদ্দ দেয়া হলেও টেকনিশিয়ানের অভাবে তা সংযোজন করা যাচ্ছে না। এরপরও প্রতিদিন প্রায় ৫শ’ রোগী আউটডোর চিকিৎসা নেন। এছাড়া ভর্তি হচ্ছেন ৪০ থেকে ৫০ জন। জনবল না থাকায় চিকিৎসা সেবা বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। আর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, জরুরি বিভাগ চালু হলে অনেক সঙ্কট দূর হবে। ৫৮ চিকিৎসকের স্থলে হাসপাতালে কর্মরত আছেন মাত্র ১৮ চিকিৎসক।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author