আগামী দশকের মধ্যে দেশকে কুষ্ঠরোগমুক্ত করতে চায় সরকার

কুষ্ঠ
আক্রান্ত ব্যক্তিদের প্রতি দয়া নয়, বরং পারিবারিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে
সম্পৃক্ত রেখে বৈষম্য দূর করার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রতিবন্ধিতা দূর করতে মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে দায়িত্ব নিয়ে সামাজিক সহাবস্থান
নিশ্চিত করার তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী। রাজধানীতে একটি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী
শেখ হাসিনা।

কুষ্ঠ
বা লেপ্রসিকে বলা হয় ট্রপিক্যাল ডিজিজ বা গ্রীষ্মপ্রধান রোগ। চিকিৎসা
বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে প্রাচীন এ সংক্রমক ব্যাধির
প্রাদুর্ভাব অনেকটাই কমে এসেছে। তারপরও সরকারের লক্ষ একে শূন্যের কোটায়
নামিয়ে আন। এ বিষয়ে বাংদেশকে
সহায়তা করছে জাপানের সাসাওয়াকা হেলথ ফাউন্ডেশন।

প্রতি
দশ হাজার জনে কুষ্ঠরোগের হার বর্তমানে শূন্য
দশমিক ২৪। ২০৩০ এর মধ্যে এ রোগ নির্মূলের লক্ষে
ঢাকায় অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় লেপ্রসি সম্মেলন। এর উদ্বোধন
করে কুষ্ঠরোগ মুক্তির প্রতীক হিসেবে শাপলা ফুল তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ
হাসিনা।

কুষ্ঠসহ
অন্যান্য সংক্রমক
ব্যাধিকে চিরতরে নির্মূলের পাশাপাশি কর্মক্ষম জাতি
গঠনে সরকারের অবস্থান তুলে ধরেন তিনি। কুষ্ঠরোগীকে
ঘৃণাভরে দূরে ঠেলে না দিয়ে উপযুক্ত চিকিৎসার পরামর্শ দেন শেখ হাসিনা। স্বল্পমূল্যে
সেবা নিশ্চিতে চিকিৎসা ক্ষেত্রে গবেষণা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দেন সরকার প্রধান।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author