রেললাইনে ভাসমান দোকান

রেললাইনে ভাসমান দোকানের কারণে বাড়ছে দুর্ঘটনা। নানা পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসেন হকাররা। রাজধানীর বিমান বন্দর স্টেশন থেকে কমলাপুর পর্যন্ত একই দৃশ্য। এতে বাড়ছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি। তবে হকাররা বলছেন, নির্দিষ্ট স্থান না পেয়ে জীবিকার প্রয়োজনেই নিচ্ছেন ঝুঁকি।

ট্রেন আসার হুইসেল শুনে হুড়োহুড়ি, ক্ষণিকের জন্য লাইন
থেকে একটু দূরে দাঁড়ানো। ট্রেন চোখের আড়ালে গেলেই ফের লাইনে হরেক রকমের পন্যের
ফসরা সাজিয়ে বসেন দোকানিরা। নিত্যদিনের এমন দৃশ্য প্রশাসনের চোখের সামনেই। রাজধানীর
বিমানবন্দর স্টেশন থেকে কমলাপুর পর্যন্ত পুরো পথজুড়েই চলছে ঝুঁকিপূর্ন ব্যবসা।

এতে প্রায়শই ঘটছে দুর্ঘটনা। তারপরও অকারনকে কারন হিসেবে দাঁড় করাচ্ছেন হকাররা। পথচারীসহ সাধারণরা বলছেন এটি অতিরিক্ত লোভ আর অসচেতনতা, দুষছেন প্রশাসনকেও। রেল কর্তৃপক্ষ বলছেন বারবার উচ্ছেদ করলেও রাজনৈতিক নেতাদের অসহযোগিতার কারণে ব্যর্থ হচ্ছেন তারা। নিরাপদ যাত্রায় হকারমুক্ত হবে রেলপথ, এমনটাই প্রত্যাশা সচেতন মহলের।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author