কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১৬

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক। রাতের শেষ প্রহর। যাত্রীরা সবাই ঘুমে বিভোর। আচমকা বিকট ঝাঁকুনিতে আসন থেকে ছিটকে পড়েন সবাই। নিকষ অন্ধকারে কেউ বুঝে উঠতে পারেন না ঘটনা কি। এর মধ্যেই চিৎকার চেঁচামেচি, কান্নার আহাজারি। পরিস্থিতি খোলাসা হয় ধীরে ধীরে। নিশ্চল ট্রেনের ভেতর থেকে বাইরে বেরোনোর পর সবাই টের পান তারা দুর্ঘটনায় পড়েছেন।

ঘটনাস্থল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশন।  সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেসের সঙ্গে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্না নিশিথা এক্সপ্রেসের মুখোমুখি সংঘর্ষ। এতে উদয়নের দুটি বগি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ফলাফল ১৬ জনের তাৎক্ষণিক মৃত্যু। হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দুর্ঘটনার জন্য তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেসকে দায়ী করেছেন স্টেশন মাস্টার।

তূর্ণা নিশীথার দুই গার্ডকে সাময়িক বরখাস্তের পাশাপাশি দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে চারটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়েছেন ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খান

খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে যান রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে চারটি তদন্ত কমিটি গঠনসহ হতাহতদের আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন। নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে এক লাখ ও আহতদের দশ হাজার টাকা দেয়ার ঘোষণা দেন তিনি মন্ত্রী

এ দুর্ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেইসঙ্গে ভবিষ্যতে এ ধরনের অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে চালকসহ সংশ্লিষ্টদের উন্নত প্রশিক্ষণের ওপর জোর দেন তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author