প্রযুক্তির সঙ্গে তালমিলিয়ে এগিয়ে চলছে মণিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজ

বিপ্রজিৎ বাপ্পা: যুগ এখন আধুনিকতা আর প্রযুক্তির দখলে। আর সেই প্রযুক্তির সঙ্গে সমান তালে শিক্ষা ব্যবস্থায় এগিয়ে চলছে দেশ সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মণিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজ। সৃজনশীল পাঠদান পদ্ধতিকে সহজতর করতে ডিজিটাল শিক্ষাপদ্ধতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে বলে মনে করছে মণিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ। আর ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতি প্রাইভেট ও কোচিং বাণিজ্য বন্ধে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে বলে মনে করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ঢাকা ১৫ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব কামাল আহমেদ মজুমদার।

মুলিবাসের বেড়া আর টিনের ছাউনি দিয়ে ১৯৬৯ সালে জুনিয়র হাই স্কুল হিসেবে যাত্রা শুরু করে মনিপুর স্কুল। বদলেছে সময়, পাল্টে গেছে অবকাঠামো। উন্নয়নের পালে মূলত হাওয়া বইতে শুরু করে ১৯৯৬ সাল থেকে। আর দায়িত্ব নিয়েই এর কারিগর হিসেবে অগ্রভাগে ছিলেন বৃহত্তর মিরপুরের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কামাল আহমেদ মজুমদার। একে একে তিনি গড়ে তুলেছেন ৫ টি নান্দনিক ব্রাঞ্চ। বর্তমানে দেশসেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সেই মনিপুর আজ উচ্চবিদ্যালয় অ্যন্ড কলেজ হিসেবে দাড়িয়ে।প্রক্রিয়া চলছে বিশ্ববিদ্যালয় করার।

প্রযুক্তিতেও এগিয়ে বহুদুর। সরকার ঘোষিত ড্রিম স্কুল প্রজেক্টের আদলে গড়ে ওঠা এ প্রতিষ্ঠানে ৫টি ক্যাম্পাসের ৬টি ভেন্যুতে ৬০০রও বেশি শ্রেণীকক্ষে এখন পাঠদান চলে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে।

ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতি অধ্যয়নের গতি কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে বলে মনে করেন মণিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন।

মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে সহজেই শিক্ষার্থীরা কঠিন বিষয়ও আয়ত্ব করে ফেলছে বলে মনে করেন মণিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, ঢাকা ১৫ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব কামাল আহমেদ মজুমদার।

ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতি শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়া থেকেও বিরত রাখছে বলেও দাবি করেন তিনি।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment