সাবেক
রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রথম জানাজা
সম্পন্ন হয়েছে। সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ৯০ বছর বয়সে শেষ
নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মাদ আব্দুল
হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ডক্টর শীরিন শারমীন চৌধুরীসহ বিভিন্ন
রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতারা।
আরও জানাচ্ছেন ঊষা ফেরদৌস।

সব
মায়ার বাঁধন ছিন্ন করে বর্ণাঢ্য জীবনের ইতি টানলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয়
পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার মৃত্যুর খবরে সম্মিলিত সামরিক
হাসপাতালে ভিড় করেন স্বজন, এক সময়ের সহকর্মী ও দলীয় নেতাকর্মীরা।এসময়
তার নানা অর্জনের কথা তুলে ধরেন রওশন এরশাদসহ দলীয় নেতারা।

পরে
জানাজার জন্য ঢাকা ক্যান্টনমেন্টে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় কেন্দ্রীয় মসজিদে নেয়া হয়
মরদেহ। সেখানে প্রথম জানায় ঢল নামে সামরিক বেসামরিকসহ হাজারো মানুষের।

সোমবার
সকাল ১০টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় ২য় জানাজা শেষে মরদেহ নেয়া হবে জাতীয়
পার্টির কাকরাইল কার্যালয়ে। বাদ
আসর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে তৃতীয় জানাজা শেষে সিএমএইচ এর হিমঘরে রাখা হবে
তার মরদেহ। ১৬ জুলাই সকালে হেলিকপ্টারে করে নেয়া হবে রংপুরে। ১৬ জুলাই বিকেলে সেনাবাহিনী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author