Rajlokkhi-Fireরাজধানীর উত্তরায় আগুন লাগা একটি ভবনের চারতলায় হোটেল সী সেলের একটি কক্ষ থেকে দু’জনের অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন নারী ও একজন পুরুষ। ভোর পাঁচটার দিকে তিনটি ভবনে আগুন লাগে। চার ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস।  প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চার নম্বর সেক্টরে ছয়তলা একটি ভবনসহ পাশের দুটি ভবনে আগুন লাগে। তবে আগুনের সূত্রপাত কীভাবে হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত নয়।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ জানান, উত্তরার রাজলক্ষ্মী ভবনের বিপরীত দিকে রাস্তার পূর্বপাশে ৪ নম্বর সেক্টরে uttaraচারতলা সি-শেল রেস্তোরাঁর তিনতলায় প্রথম আগুন লাগে। পরে তা পাশের ছয়তলা সি-শেল আবাসিক হোটেল ও তার পাশের এ কে টাওয়ারে ছড়িয়ে পড়ে।ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

উত্তরা পূর্ব থানার ওসি নূরে আলম সিদ্দিক জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর সি-শেল আবাসিক হোটেলে তল্লাশি চালিয়ে চতুর্থ তলার ৩০২ নম্বর কক্ষ থেকে ৩০-৩৫ বছর বয়সী একজন পুরুষ এবং ২৫-২৬ বছর বয়সী এক নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

শাকিল নেওয়াজ বলেছেন, হোটেল কর্মচারীরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেনি। আগেই তারা সবাই পালিয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্ত তিন ভবনের মধ্যে মাঝখানের চার তলা ভবনের পুরোটা জুড়ে ছিল সি-শেল রেস্তোরাঁ। ওই ভবনের পুরোটাই পুড়ে গেছে।  উত্তরের ছয় তলা ভবনটির চতুর্থ তলা থেকে ষষ্ঠ তলা পর্যন্ত ছিল সি-শেল হোটেল অ্যান্ড রেসিডেন্স। আর তৃতীয় তলায় ছিল পার্টি সেন্টার। ভবনটি নিচতলায় রয়েছে একুশে সুইটস অ্যান্ড বেকারি এবং রহিম আফরোজের একটি শো-রুম এবং দোতলায় আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের কার্যালয়।

সি-শেল রেস্তোরাঁর মালিক আমানউল্লাহ আমান। ছয় তলা ওই ভবনের মালিক উত্তরখান থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু হানিফ।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment