তামিম ইকবালের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের সুবাদে ঢাকা ডায়নামাইটসকে ১৭ রানে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা ঘরে তুললো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এ ম্যাচে বিপিএলে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ১৪১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন তামিম ইকবাল। ম্যাচ সেরা তামিম ও সিরিজ সেরা হয়েছেন ঢাকার সাকিব।

টস, ক্রিকেট অভিধানে একে ধরা হয় ম্যাচের অন্যতম এক নিয়ামক হিসেবে। সেই টসের
চাকা ঘুরলো ঢাকার পক্ষে। কাপ্তান সাকিবও সিদ্ধান্তটা নিলেন দ্রুত। প্রতিপক্ষকে
পাঠালেন ব্যাটিংয়ে। তাকে হতাশ করেননি বোলাররা। শুরুতেই লুইসের উইকেট তুলে নিয়ে
কুমিল্লা শিবিরে ছড়িয়ে দেন ভয়।

অবস্থা এমন যে, ঢাকার বোলারদের দাপটে রানের চাকা শ্লথ হয়ে যায় কুমিল্লার। যদিও এরি মধ্যে তামিমের সঙ্গে ৯১ রানের জুটি গড়ে ব্যক্তিগত ২৪ রানে সাজঘরে ফেরেন বিজয়।

তবে এরপরের গল্পটা আর নিজেদের মত করে লিখতে পারেনি ঢাকা। পুরো
পাণ্ডুলিপি চলে যায় কুমিল্লার হাতে। শুরু হয় ওপেনার তামিমের চার-ছক্কার ঝড়। ঢাকা বোলারদের
নাস্তানাবুদ করে সমানে চালাতে থাকেন ব্যাট। মাত্র ৫০ বলে টি টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে
দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন এই বাহাতি। তার ১৪১ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসের
সুবাদে কুমিল্লার সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩ উইকেটে ১৯৯ রান।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমেই প্রথম বলেই উইকেট হারায় ঢাকা। তবে গ্যালারি মাতিয়ে রান সংগ্রহে ব্যস্ত হয়ে ওঠেন থারাঙ্গা ও রনি। ১০২ রানের জুটি করে ব্যক্তিগত ৪৮ রানে আউট হন থারাঙ্গা। এরপর মাঠ ছাড়েন সাকিব, রনি, রাসেল পোলার্ড ও শুভাগত হোম।

এরপর কুমিল্লার নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শেষ হাসিটা হাসা হয় না ঢাকার। ১৮২ রানেই
শেষ হয় ডায়নামাইটসের ইনিংস। কুমিল্লার হয়ে ২টি পেরেরা ও ওহাব রিয়াজ নেন ৩টি উইকেট।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author