একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না খালেদা জিয়া

বিচারিক আদালতে দুই বছরের বেশি দণ্ড হলে আপিল বিচারাধীন থাকাবস্থায় কেউ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না। তবে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে দণ্ড স্থগিত ও জামিন হলেই তিনি নির্বাচন করতে করতে পারবেন। দুপুরে বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, ওয়াদুদ ভূইয়াসহ পাঁচ নেতার দণ্ড স্থগিত চেয়ে করা আবেদন খারিজ করে দিয়ে এ সংক্রান্ত পর্যবেক্ষণ দেন হাইকোর্ট।

সে প্রেক্ষিতে এই পাঁচজন এবং বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

রায় পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,

জাতীয় নির্বাচন ব্যাহত করতেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নতুন রায় দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, নির্বাচনের আগে দেশের বড় রাজনৈতিক দল বিএনপির চেয়ারপারসন  খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করে উচ্চ আদালতের রায়ে সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটেছে।

মঙ্গলবার বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে রায় পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন তিনি। 

মির্জা ফখরুল বলেন, এ রায় জনগণ ঘৃণা ভরে প্রত্যাখান করেছে। ঐক্যফ্রন্ট ও নির্বাচন প্রতিহত করতেই এ রায় দেওয়া হয়েছে। আমরা আশা করেছিলাম, নির্বাচনের আগেই চেয়ারপারসন মুক্তি পেয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন। কিন্তু সরকার আদালতকে ব্যবহার করে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতেই এ রায় দেওয়া হয়েছে। 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author