সংবিধান অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে বিদেশি পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতি ও দেশি পর্যবেক্ষকদের কর্মপরিধি নির্ধারণ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া বিশ্লেষকদের। তারা বলছেন, সংবিধান অনুযায়ী সবপক্ষ যথাযথ দায়িত্ব পালন করলে বিদেশি পর্যবেক্ষক প্রয়োজন হবে না। কিন্তু রাজনৈতিক সংস্কৃতি ও অতীত অভিজ্ঞতার কারণে বিদেশি পর্যবেক্ষক থাকলে স্বস্তি পায় ভোটার ও বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

বড়দিনের ছুটির কারণে ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষণে থাকতে পারছেন না বিদেশি পর্যবেক্ষকদের বড় একটি অংশ। আবার দেশের বিভিন্ন সংস্থা নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করলেও এ নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলতে পারবেন না তারা।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণ ও পর্যবেক্ষক নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে নানা মত বিশ্লেষকদের। তারা বলছেন, নির্বাচন কমিশন সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী। সেনাবাহিনী মোতায়েনেরও কথা রয়েছে। সবাই নিরপেক্ষভাবে কাজ করলে বিদেশি পর্যবেক্ষক গুরুত্বপূর্ণ নয়।

তবে, অতীত অভিজ্ঞতা ও রাজনৈতিক সংস্কৃতির কারণে, নির্বাচন কমিশন ও আইনশৃংখলা বাহিনীর ওপর আস্থা কম। তবে, বিদেশি পর্যবেক্ষক ছাড়া নির্বাচন হবে না, এমনটাও যথার্থ নয়।

তফসিল ঘোষণার পর, দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। কিন্তু ক্ষমতা প্রয়োগে ইসির শৈথিল্য ও অনীহা দেখছেন তারা।

 

 

 

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment