প্রধানমন্ত্রীকে কওমি জননী আখ্যা দিলেন আলেমরা

সন্ত্রাসীদের ধর্ম বা দেশ নেই; যারা সত্যিকারের ইসলামে বিশ্বাসী তারা কখনই জঙ্গি হতে পারে না এমন মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কোন ধরনের অপপ্রচারে কান না দিয়ে সরকারের প্রতি আস্থা রাখার আহ্বানও জানান তিনি। কওমি মাদ্রাসার ছয়টি বোর্ড নিয়ে গঠিত আল-হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়া বাংলাদেশ আয়োজিত শুকরানা মাহফিলে এসব কথা বলেন সরকার প্রধান। এ সময়, কওমি শিক্ষা ব্যবস্থার সুরক্ষায় আইন করা হয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। মাহফিলে প্রধানমন্ত্রীকে কওমী জননী উপাধিতে ভূষিত করেন আলেমরা।

কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ স্তর দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্সের সমমান স্বীকৃতি দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা দিতেই এ শুকরানা মাহফিলের আয়োজন। দেশের ১৩ হাজারেরও বেশি কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে ওঠে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান।

কওমী সনদের স্বীকৃতি দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে কওমী জননী উপাধিতে ভূষিত করেন সংগঠনের নেতারা। প্রধান অতিথির বক্তব্যে, ইসলামের প্রসারে বঙ্গবন্ধু ও বর্তমান সরকারের নানা উদ্যোগ তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

ইসলামবিরোধী অপপ্রচারে সাড়া না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এরসঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সারা জীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন প্রধানমন্ত্রী।

মাহফিলে প্রধানমন্ত্রীর হাতে শুকরানা স্মারক তুলে দেন আল্লামা শাহ আহমদ শফি। সরকার প্রধানও আল্লামার শফির হাতে কওমি মাদ্রাসা বিল পাশের সনদ তুলে দেন।

শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল চেয়ে করা মোনাজাতে অংশ নেন সরকার প্রধান।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author