গোপালগঞ্জে ২৬০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই। সহকারি শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে ২৭৩টিতে। এসব বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়েই চলছে পাঠদান। এতে দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম।

গোপালগঞ্জ জেলায় ৮৩৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৭৭ হাজার ৩৯৮ জন। এসব বিদ্যালয়ের মধ্যে প্রধান শিক্ষক নেই ২৬০টিতে। সহকারি শিক্ষকের পদ শূন্য ২৭৩টিতে।

প্রধান শিক্ষক নেই সদর উপজেলার ৮৬টি বিদ্যালয়ে, কোটালীপাড়ার ২৬, কাশিয়ানীতে ৬২, মুকসুদপুরে ৫৯ ও টুঙ্গীপাড়ায় ২৭টিতে। আর সহকারি শিক্ষকের পদ শূন্য কোটালীপাড়ায় ৭, কাশিয়ানীতে ৩৬, সদর উপজেলায় ১৪০, মুকসুদপুরে ৮৭ ও টুঙ্গীপাড়ার ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

শিক্ষক সঙ্কটে এসব বিদ্যালয়ে নানা সমস্যা ও জটিলতা সৃষ্টি হচ্ছে। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়েই চলছে কার্যক্রম। ব্যাহত হচ্ছে দাপ্তরিক কাজ ও পাঠদান।

এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পৌনে দুই লাখ শিক্ষার্থীর পাঠদান নিশ্চিতে অবিলম্বে আশ্বাস বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন শিক্ষক অবিভাবকেরা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment