নদী ভাঙ্গনের কারনে হুমকির মুখে পড়েছে পটুয়াখালীর দশমিনায় দেশের বৃহৎ বীজ উৎপাদন খামার। এরইমধ্যে নদী গর্ভে বিলিন হয়েছে খামারের তিন ভাগের এক ভাগ জমি। দ্রুতই পদক্ষেপ না নিলে চলতি বর্ষা মৌসুমিই প্রকল্পের অর্ধেক জমি বিলিন হওয়ার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। এতে মুখ থুবরে পড়বে উন্নত জাতের বীজ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা।

উন্নত জাতের বীজ উৎপাদনের লক্ষ্যে পটুয়াখালীর দশমিনার বাঁশবাড়িয়ার তিনটি চর নিয়ে বীজ উৎপাদন খামার প্রতিষ্ঠা করে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন, বিএডিসি। ২০১৩ সালের ১৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী প্রকল্পটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। কৃষি মন্ত্রণালয় এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা-এর আর্থিক সহায়তায় এক হাজার কোটি টাকা ব্যায়ে ১ হাজার ৪৪ দশমিক তিন চার একর জমির ওপর গড়ে উঠে প্রকল্পটি। ২০১৭ সালের জুন মাসে প্রকল্পটি হস্তান্তর করা হয় বিএডিসি খামারের কাছে।

অব্যাহত নদী ভাঙ্গনের ফলে দিনে দিনে বিলিন হচ্ছে খামারটি। এখনই পদক্ষেপ না নিলে পুরো খামরটিই নদী গর্ভে বিলিনের শঙ্কা করছেন কৃষকরা। জমির আয়তন কমার সঙ্গে সঙ্গে ফসল উৎপাদনও কমছে। বেকার হয়ে পড়ছেন অনেক শ্রমিক।

আর সঠিক পরিকল্পিনার মাধ্যমে ভাঙ্গন রোধ সম্ভব বলে মনে করেন দশমিনা বীজ উৎপাদন খামারের উপ-পরিচালক। গেল বছরের জরিপ অনুযায়ী কয়েক বছরে খামারের ২৫৩ একর জমি নদী গর্ভে বিলিন হয়।

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment