পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লালুয়ায় এগিয়ে চলেছে স্বপ্নের প্রকল্প পায়রা গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ কাজ। এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে বদলে যাবে দক্ষিণাঞ্চলের চিত্র। ২০১৯ সালে স্বল্প পরিসরে বন্দরের কার্যক্রম চালু করতে এখন চলছে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ কাজ। এর মধ্যে টার্মিনাল নির্মাণকে অন্যতম চ্যালেঞ্জ মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নে এগিয়ে চলেছে দক্ষিণবঙ্গের স্বপ্নের প্রকল্প পায়রা গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ কাজ। প্রকল্পের মেয়াদ ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত নির্ধারণ করা হলেও টার্মিনাল ২০১৯ সালেই নির্মিত হবে।

এরমধ্যে ৪৬ হাজার ২০০ বর্গমিটার জেটি, ৫২ হাজার বর্গমিটার স্লোপ প্রটেকশন, ১৩শ’মিটার গ্যান্টি ক্রেনের জন্য রেল লাইন নির্মিত হবে। নির্মাণ করা হবে ৫ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন, ১০ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার লাইন, সাড়ে ৬ কিলোমিটার ফোরলেন মহাসড়ক। টার্মিনালে পণ্য খালাসের সুবিধায় থাকবে অত্যাধুনিক সুবিধা।

বন্দরটি বাস্তবায়িত হলে দক্ষিণাঞ্চলের সার্বিক পরিস্থিতি পাল্টে যাওয়ার প্রত্যাশা স্থানীয়দের। পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মহিউদ্দিন আহমেদ খান বলেন, এর মাধ্যমে দেশীয় বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মাধ্যমে জাতীয় প্রবৃদ্ধিতে প্রত্যাশীত অবদান রাখবে।

২০১৯ সালের মধ্যেই নির্মাণ সামগ্রী ও অন্যান্য বাল্ক পণ্যবাহী জাহাজ থেকে পণ্য খালাস করে দেশের অভ্যন্তরে প্রয়োজনীয় স্থানে পরিবহন সহজ করা হবে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment