পেয়ারা চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার ২৬ গ্রামের মানুষ। নদীবেষ্টিত এসব গ্রামের আনাচে কানাচে গড়ে উঠেছে দুই হাজারের বেশি পেয়ারা বাগান। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে যা সরবরাহ করা হয় সারাদেশে।

পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার পেয়ারা দেশজুড়ে বরিশালের পেয়ারা নামে পরিচিত। বলা হয়,এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ পেয়ারা আবাদ ক্ষেত্র নেছারাবাদ।

জুন থেকে শুরু হয়ে পরবর্তী ৫ মাস চলে বাগান থেকে পেয়ারা সংগ্রহ। পরে নৌকায় করে তা নিয়ে আসা হয় বিভিন্ন ভাসমান হাটে। সেখান থেকে  নদীপথেই চলে যায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে।

পেয়ারার মৌসুমে, প্রচুর পর্যটক যান নেছারাবাদে। পর্যটকদের জন্য বিভিন্ন সুবিধা নিয়ে প্রথমবারের মতো যাত্রা শুরু হয়েছে পেয়ারা পার্ক। পেয়ারা চাষিদের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

 নেছারাবাদ উপজেলার ২৬ গ্রামের সবকটিতেই পেয়ারার চাষ হয়। ২ হাজার ২৫টি বাগানের সঙ্গে সরাসরি জড়িত প্রায় দেড় হাজার পরিবারের জীবন-জীবিকা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment