চাঁপাইনবাবগঞ্জে নতুন জাতের আম যাদুভোগ। দেখতে ল্যাংড়ার মতো আমের এ জাতটি এখনও কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে স্বীকৃতি পায়নি। তবে নাবী জাতের এ আম জয় করেছে স্থানীয়দের মন। গবেষকরা বলছেন, সময় উপযোগী ও লাভজনক হওয়ায় যাদুভোগ সম্প্রসারণ করা গেলে আমের দরপতন ঠেকানো সম্ভব।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ভোলাহাটের সন্দ্রাবাড়ি এলাকায় নতুন জাতের যাদুভোগ আমের সন্ধান  মিলেছে। অনন্য বৈশিষ্ট্যের কারণে জাতটি নজর কেড়েছে আম গবেষকদেরও।

গোপালভোগ, ক্ষিরসাপাত, ল্যাংড়া যখন শেষ; তখনই পাকতে শুরু করে এ আম। বাগান মালিক জানান, ভারত থেকে তার আত্মীয় এ আম নিয়ে এসেছিলেন, তার বীজ থেকেই হয়েছে গাছটি।

জাতটি অত্যন্ত সময় উপযোগী ও লাভজনক হওয়ায় এটি সম্প্রসারণ করা গেলে আমের দরপতন ঠেকানো সম্ভব বলে জানান স্থানীয় হর্টিকালচার সেন্টারের কর্মকর্তারা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মধুমাস তিন থেকে ছয়মাসে বর্ধিত করতে এ জাতটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। জাতটি সম্প্রসারণে উদ্যোগ নেয়ার কথাও জানান তারা।

এ বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জে আমের দাম তুলনামূলক কম হলেও যাদুভোগ প্রতি মন বিক্রি হয়েছে ছয় হাজার টাকা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment