বড়পুকুরিয়া খনির কয়লা লুটের পর এবার হিসেব পাওয়া যাচ্ছে না দিনাজপুরের পার্বতীপুরে মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের তিন লাখ ৫৯ হাজার ৮১৭ টন পাথরের। যার মূল্য প্রায় ৫৬ কোটি টাকা। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে পরিমাপগত ক্রটি, সিস্টেমলস ও মাটিতে দেবে গেছে এসব পাথর।

দিনাজপুরের পার্বতিপুরের মধ্যপাড়া খনি উন্নয়নকালীন পর্বসহ বাণিজ্যিক উৎপাদনে যায় ২০০৭ সালের ২৫ মে। চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত খনি থেকে উত্তোলন করা হয় ৪২ লাখ ৩৫ হাজার ৫২৫ মেট্রিক টন পাথর। গত ২৯ জুলাই এমজিএমসিএল বোর্ড সভায় উত্থাপিত রিপোর্টে ২০০৬-২০০৭ অর্থবছর থেকে ২০১২-২০১৩ অর্থবছর পর্যন্ত পরিমাপগত ক্রটি ও সিস্টেম লস দেখানো হয় দুইলাখ ২৭ হাজার ২৩৩ মেট্রিক টন পাথর। এছাড়া দাবি করা হয় ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে খনি ইয়ার্ডে মাটিতে দেবে যায় এক লাখ ছয় হাজার ৪৮৬ মেট্রিক টন পাথর।

এমজিএমসিএল বোর্ড সভায় পাথর লুটের বিষয়টি উত্থাপনের পর আলোচনার জড় উঠে। মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও পেট্রোবাংলার মহাব্যবস্থাপক জাবেদ চৌধুরীর জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিন লাখ ৫৯ হাজার ৮১৬ দশমিক আট নয় টন পাথরের মূল্য বাবদ ৫৫ কোটি ২৩ লাখ ৪৮ হাজার ৪৪৮ টাকা অবলোপনকরার জন্য এমজিএমসিএল বোর্ডকে অনুরোধ করে খনি কর্তৃপক্ষ।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment