ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্টে ভরাডুবির পর ওয়ানডে সিরিজ জয়ে আনন্দে ভাসছে বাংলাদেশ। ব্যক্তিগত আর দলীয় সাফল্যে ওয়ানডেতে আলো ছড়িয়েছে টাইগাররা। সর্বোচ্চ রান কিংবা উইকেট শিকার, দু’টিতে শীর্ষে বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে কয়েকটি রেকর্ডও গড়েছে লাল-সবুজের দল।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে ভিন্ন রূপে দেখা গেছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। ব্যাটিং ব্যর্থতায় যে তামিম-সাকিব-মুশফিকদের টেস্টে খুজেই পাওয়া যায়নি, সেই তাদের কাঁধে ভর করে ওয়ানডেতে আধিপত্য দেখিয়েছে বাংলাদেশ।

দুই টেস্টে ৪ ইনিংসে ৪০ উইকেটের বিনিময়ে বাংলাদেশের মোট সংগ্রহ ৫ শ’ ৪ রান। সেখানে ওয়ানডে সিরিজে ৩ ইনিংসে ১৬ উইকেট হারিয়ে টাইগাররা করেছে ৮ শ’ ৪৮ রান। টেস্ট সিরিজে যেখানে সাকিব বাহিনীর উইকেট প্রতি গড় রান ১২ দশমিক ৬, ওয়ানডেতে তা চারগুণেরও বেশি– ৫৩।

ওয়ানডেতে তিন ইনিংসে তামিমের সংগ্রহ ২৮৭ রান। বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের হয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে কোন ব্যাটসম্যানের এটি সর্বোচ্চ সংগ্রহ। সেই সঙ্গে দেশের বাইরে দ্বি-পক্ষীয় সিরিজে একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে দু’টি সেঞ্চুরি করেন তামিম। ওয়েস্ট ইন্ডিজের তিন ম্যাচের সবক’টি ম্যাচেই পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলা একমাত্র খেলোয়াড়ও এখন এই টাইগার ওপেনার।

সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে সাকিব-তামিমের ২০৭ রানের জুটি নিজেদের ইতিহাসে দ্বিতীয় উইকেটে সেরা অর্জন। সেই সঙ্গে এই জুটির করা ৩৮৫ রান তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে যেকোন জুটির বিশ্বরেকর্ড।

তিন ম্যাচে ৭ উইকেট নেয়া মাশরাফি আসরের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। সিরিজ শেষে ব্যাটিং রেঙ্কিংয়ে ক্যারিয়ার সেরা ১৩ নম্বরে ওঠেন তামিম। বোলিংয়ে তিন ধাপ উন্নতিতে ২৬ নম্বরে সাকিব। ব্যক্তিগত উন্নতি হলেও, দলীয় সাফল্যে কিছুটা ম্লান হয়েছে বাংলাদেশ। রেঙ্কিংয়ের নিচের দলকে হোয়াইটওয়াশ করতে না পারায় রেটিংয়ে এক পয়েন্ট খুইয়েছে টাইগাররা।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment