ভরা মৌসুমেও বঙ্গপসাগর মোহনা সংলগ্ন বিষখালী-বলেশ্বর নদীতে ইলিশের দেখা মিলছে না। তবে গভীর সমুদ্রে প্রচুর ইলিশ থাকলেও বৈরি আবহাওয়ার কারনে জাল ফেলা যাচ্ছে না। আবার কয়েকদিন আগে গভীর সমুদ্রে ঝড়ের কবলে পরে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ জেলে পরিবারে চলছে আহাজারী। অন্যদিকে সুন্দর বনে আশ্রয় নিতে গিয়ে জলদস্যুর হাতে জিম্মি পরিবার রয়েছে উৎকণ্ঠায়।

চলছে ইলিশের ভরা মৌসুম। তারপরও বঙ্গপসাগর মোহনা সংলগ্ন বলেশ্বর ও বিষখালী নদীতে ইলিশের দেখা মিলছে না। তবে গভীর সমুদ্রে প্রচুর ইলিশ রয়েছে। গভীর সমুদ্রে ইলিশ শিকারে এক সপ্তা আগে বরগুনা জেলাসহ উপকূলীয় এলাকার কয়েকশ ফিসিং ট্রলার যায় ইলিশ শিকারে। গত ৩-৪ দিন আগে মৌসুমী লঘু চাপের প্রভাবে সমুদ্র উত্তল হয়ে গেলে জেলেরা কূলে ফিতে শুরু করে। তখন ঝড়ের কবলে ডুবে যায় কয়েক টি ট্রলার। নিখোঁজ হয় অনেক জেলে।

জেলে ও ট্রলার মালিক। জেলা ফিসিং ট্রলার শ্রমিক ইউনিয়ন পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় মুক্তিপণের দাবিতে সুন্দর বনে আশ্রয় নেওয়া কয়েকজন জেলেকে জিম্মি করেছে দস্যুরা।

এ নিয়ে নিখোঁজ জেলে পরিবারে চলছে আহাজারি। আর নিখোঁজদের সন্ধানে সমুদ্রে নামতে প্রস্তুত মৎসজীবি ট্রলার মালিক সমিতি। এদিকে, আবহাওয়া অনুকুলে আসলে বলেশ্বর ও বিষখালীর মিঠা পানিতে ইলিশ ধরা পড়তে পারে বলে আশা করছেন আড়ৎদাররা।

একই কথা ববলছেন পাথরঘাটা উপজেলা নিবার্হী কমর্কতার্। নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধার নিয়েও কথা বলেন তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment