২২ জুলাইয়ে নিজেদের ওয়ানডে মিশন শুরুর আগে প্রস্তুতিটা ভালোই সেরে নিলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশ তাদের একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ জিতেছে ৪ উইকেটে। মাশরাফি-সাকিব না থাকায় এই ম্যাচে নেতৃত্ব দেন মাহমুদউল্লাহ।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টায় জ্যামাইকার স্যাবাইনা পার্কে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নামে ভাইস চ্যান্সেলর একাদশ। ক্রিস গেইল ও আন্দ্রে রাসেলকে নিয়ে গড়া দলটি বাংলাদেশকে জয়ের জন্য ২২৮ রানের লক্ষ্য দেয়। জবাবে ৪৩.৩ ওভারে ৬ উইকেটে জয় পায় সফরকারীরা।

শুরুটা কিন্তু ভালো হয়নি বাংলাদেশের। রানের খাতা না খুলে ফিরে যান এনামুল হক। তার বিদায়ের পর লিটন কুমার ও নাজমুল হোসেন শক্ত জুটি গড়েন। ১৯তম ওভারে দলীয় ১০১ রানে ফিরে যান নাজমুল ৪৩ রান করে।

তারপর ২৬ রানের ব্যবধানে বাংলাদেশ হারায় আরও তিনটি উইকেট। পঞ্চম উইকেটে মোসাদ্দেক হোসেন ও মুশফিকুর রহিম ২৯ রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়েন। দলীয় ১৫৬ রানের মাথায় মোসাদ্দেক ফিরে গেলে আবার ২২ গজে নামেন ৪৩ রানে রিটায়ার্ড হার্ট হওয়া লিটন।

মুশফিককে সঙ্গে নিয়ে লিটন দলকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যান। ৬১ বলে হাফসেঞ্চুরি করে শেষ পর্যন্ত খেলেন ৭০ রানের ইনিংস। লিটন আউট হলে জয়ের জন্য অসমাপ্ত কাজটা মুশফিক করেন মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে। বাউন্ডারি মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। ৭৫ রানে অপরাজিত ছিলেন মুশফিক।

তার আগে মোসাদ্দেক হোসেন ও রুবেল হোসেনের দারুণ বোলিংয়ে বেশিদূর এগোতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাছাই একাদশ। ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২২৭ রান করে ক্রিস গেইল ও আন্দ্রে রাসেলকে নিয়ে গড়া দলটি ।

স্বাগতিকদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন ইয়ানিক ওটলি। এছাড়া কাভেম হজ ৪৪, আমির জঙ্গু ৩৬ ও ক্রিস গেইল করেন ২৯ রান।

স্পিন-অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক ১৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে দলের সেরা বোলার। এছাড়া ৪০ রান খরচায় রুবেল নিয়েছেন ৩টি উইকেট। আবু হায়দার রনি ও মোস্তাফিজুর রহমান একটি করে উইকেট নিয়ে প্রস্তুতি সেরেছেন।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment