কুষ্টিয়ায় ১২টি সিনেমা হলের মধ্যে এখন টিকে আছে মাত্র একটি। বাকীগুলো রুপ নিয়েছে গোডাউন, কমিউনিটি সেন্টার ও বাণিজ্য কেন্দ্রে। বুকিং এজেন্ট তদারকির বিষয়ে সরকারি উদ্যোগ নেয়া ও কর কমানো হলে বন্ধ হলগুলো আবার চালু করা সম্ভব হবে বলে জানান হল মালিকরা।

কুষ্টিয়া শহরে ৪টি ও ৬টি উপজেলায় ৮টিসহ মোট ১২টি সিনেমা হল গড়ে ওঠে ষাটের দশকে। কিন্তু দর্শক না পেয়ে একের পর এক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে সিনেমা হল। বন্ধ হয়ে যাওয়া ১১টি সিনেমা হল এখন ব্যবহৃত হচ্ছে গোডাউন, কমিউনিটি সেন্টার ও মার্কেট হিসেবে।

হলগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেকার হয়ে পড়ছে এ শিল্পের সঙ্গে জড়িত অনেক শ্রমিক। হল মালিকরা বলছেন, আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় হল বন্ধ করে দিচ্ছেন তারা।

দর্শকরা বলছেন, চাহিদা অনুযায়ী চলচ্চিত্র নির্মান ও হলের পরিবেশ ভাল হলে সুদিন ফিরবে আবার। সেইসঙ্গে সরকারি ঋণ সহায়তা দেয়া হলে বন্ধ হলগুলো আবার চালু করা সম্ভব হবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment