ভৌতিক বিদ্যুত বিলের কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন নীলফামারীর ডোমার-ডিমলা ও দেবীগঞ্জ উপজেলায় গ্রাহকরা। আবাসিক-বানিজ্যিক, সেচ ও শিল্প কারখানার এসব  গ্রাহক প্রতিদিন ধর্ণা দিচ্ছেন বিদ্যুত অফিসে। কিন্তু বিষয়টিকে  কর্তৃপক্ষ আমলে নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করছেন তারা।

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার বিদ্যুত কেন্দ্রের আওতায় তিন উপজেলায় গ্রাহক সংখ্যা ২৫ হাজার ৪৫৯জন। অতিরিক্ত বিলের হয়রানী শিকার হচ্ছেন বেশিরভাগ গ্রাহক। বিদ্যুত অফিসের এক শ্রেনীর দালালের খপ্পরে পড়ে অনেককে গুনতে হচ্ছে বাড়তি অর্থ। বাড়তি বিল পরিশোধ করতে গিয়ে সর্বশান্ত হচ্ছেন অনেকে। বিল সংশোধনের নাম করে গ্রাহকদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগও উঠেছে।

বাসা-বাড়ী, মিল ও সেচ পাম্পে ব্যবহত মিটার খুলে আনার পরেও গ্রাহকরা কোন সুরাহা পাচ্ছেন না। অভিযোগ রয়েছে অতিরিক্ত বিলের কপিও সংশোধন করা হচ্ছে বিদ্যুত অফিসের লোকজনের ইচ্ছে অনুযায়ি। ফলে বিল পরিশোধ করতে অনেকেই হচ্ছেন ঋনগ্রস্ত।

অভিযোগের সত্যতা যাছাইয়ের আশ্বাস দিলেও ক্যামেরার সামনে কথা রাজি হননি বিদ্যুতের এ কর্মকর্তা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment