যশোরের শার্শায় বাণিজ্যিকভাবে ড্রাগন ফলের চাষ শুরু হয়েছে। খেতে সুস্বাদু এবং বাজার মূল্য ভালো হওয়ায় এ ফল চাষে ঝুঁকছেন চাষীরা। এরই মধ্যে বেকারত্ব ঘুচিয়ে সাবলম্বী হয়ে উঠেছেন অনেকে।

যশোরের শার্শার ডিহি ফুলসার গ্রামে সাড়ে ৭বিঘা জমিতেবাণিজ্যিকভাবে ড্রাগন ফল চাষ শুরু করেন রাশেদুল ইসলাম ও তার ভাই আল হুসাইন। ছারা লাগানোর ১৪ মাস পরই গাছে ফল আসে। কিছু দিনের মধ্যে এ চাষাবাদ ছড়িয়ে পড়ে পুরো উপজেলায়।

রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ছাড়াই ড্রাগন ফল চাষ করে লাভবানও হচ্ছেন কৃষকরা। প্রচুর পরিমানে ক্যালসিয়াম ও আয়রণযুক্ত ফলে উজ্জল সম্ভাবনা দেখছে কৃষি বিভাগ। আর কৃষি বিভাগকে সঙ্গে নিয়ে ড্রাগন ফল চাষে বিপ্লব ঘটানোর স্বপ্ন দেখছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রমতে শার্শা উপজেলায় ৭০ হেক্টর জমিতে ড্রাগন ফলের আবাদ হয়েছে। চার বছরের মধ্যে এ সংখ্যা দাঁড়াবে ৫শ’ হেক্টরে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment