ঈদুল ফিতরে সারাদেশে সড়ক, রেল ও নৌপথে ৩৩৫টি দুর্ঘটনায় ৪০৫ জন নিহত এবং ১২৭৪ জন আহত হয়েছে। এরমধ্যে ২৭৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে ৩৩৯ জনের। সকালে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে, এসব তথ্য জানায় বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। এ সময়, দুর্ঘটনার কারণ ও প্রতিকারের বেশ কিছু উপায়ও তুলে ধরেন বক্তারা।

এবারের ঈদে সড়ক মহাসড়কে ছিলে লাশের মিছিল। যাত্রী কল্যাণ সমিতির পর্যবেক্ষণে, ১১ জুন থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন এলাকায় ৩৩৫টি দুর্ঘটনায় ৪০৫ জন নিহত হয়। যা গেলো দুই বছরের তুলনায় বেশি। সড়ক দুর্ঘটনার হতাহতের ৩৪ দশমিক ২ শতাংশ মুখোমুখি সংঘর্ষ, ৩২ দশমিক ৭-২ পথচারীকে চাপা আর ১৮ দশমিক ২ শতাংশ চাকায় ওড়না পেচানোর কারণে মারা যায়।

যাত্রী অসচেতনতা, ফিটনেসবিহীন যানবাহন, চালকদের ক্লান্তিসহ ৫টি কারণ তুলে ধরে সংস্থাটি। দুর্ঘটনা রোধে চালক প্রশিক্ষণ, সড়ক পর্যবেক্ষণসহ বেশ কিছু সুপারিশ তুলে ধরেন বক্তারা।

২০১৬ সালে ১৮৬ জন, ২০১৭ সালে ২৭৪ জন নিহত হয় বলেও জানায় যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment