উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ । প্রতিষ্ঠার পর থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধসহ সকল গণতান্ত্রিক ও রাজনৈতিক আন্দোলনে নেতৃত্বের ভূমিকায় ছিল দলটি। বর্তমানে বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে আওয়ামী লীগ।

১৯৪৯ সালেল ২৩ জুন, পুরান ঢাকার কে এম দাস লেনের রোজ গার্ডেনে আত্মপ্রকাশ করে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ। পরে, অসাম্প্রদায়িকতা ও গ্রগতির পথে হাঁটতে দলের নাম পরিবর্তন করা হয়। পথ চলা শুরু হয় আওয়ামী লীগের।

প্রতিষ্ঠাকালে মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীকে সভাপতি, শামসুল হককে সাধারণ সম্পাদক এবং কারাবন্দী শেখ মুজিবুর রহমানকে যুগ্ম সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। নেতৃত্ব আর গ্রহনযোগ্যতায় ধীরে ধীরে দলটির নিউক্লিয়াস হয়ে উঠেন শেখ মুজিবুর রহমান।

প্রতিষ্ঠার পর ভাষা আন্দোলন, চুয়ান্নতে নির্বাচনে যুক্তফ্রন্টের জয়লাভ, ছয় দফার আন্দোলন, ৬৯’র এর গণঅভ্যুত্থান ও ৭০-এর নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় লাভসহ নানান ঘটনার মধ্যদিয়ে দলটি হয়ে উঠে পূর্ব বাংলার রাজনীতির মূল চালিকা শক্তি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসাধারণ নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের মধ্যদিয়ে বিশ্বমানচিত্রে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে বাংলাদেশ। সমার্থক হয়ে ওঠে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্ব-পরিবারে হত্যা করা হয়। এরপর ৩ নভেম্বর জাতীয় চার নেতাকে কারাগারে হত্যার মধ্যদিয়ে সামরিক স্বৈরশাসকদের রোষানলে পরে আওয়ামী লীগ।

১৯৮১ সালের ১৭ মে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা নির্বাসন থেকে ফেরেন। দলীয় সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেন। ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০০৮ ও ২০১৪ সালে জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হয়।

আওয়ামী লীগকে আবারও নেতৃত্ব শূণ্য করতে গ্রেনেড ও বোমা হামলাসহ অসংখ্যবার হামলা চালানো হয় শেখ হাসিনার ওপর।

৬৯ বছরের পথপরিক্রমায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক দায়িত্বে ছিলেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী,  মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী, মওলানা আবদুর রশিদ তর্কবাগিশ, তাজউদ্দিন আহমদ, সৈয়দ নজরুল ইসলাম, আবদুল মালেক উকিল, ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী, জিল্লুর রহমান, সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দিন, আবদুল মালেক উকিল, আবদুর রাজ্জাক, সাজেদা চৌধুরী, মো. আবদুল জলিল, সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মত বরেণ্য রাজনীতিকরা। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সভাপতি এবং ওবায়দুল কাদের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment