মানিকগঞ্জে এলজিইডি’র সড়ক সংস্কার ও প্রসস্থকরণ কাজে দূর্ণীতি-অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সংস্কারে নিন্ম মানের ইট ব্যাবহার ও প্রসস্থকরণ কাজে ফাঁকি দেয়ায় সড়ক টেকসই হবে না বলে মনে করেন এলাকাবাসী। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা অভিযোগ অস্বীকার করলেও কথা বলতে রাজি হননি এলজিইডি কর্মকর্তা।

মানিকগঞ্জ-সিংগাইর সড়কের বেতিলা মোড় হতে বালিরটেক হাট পর্যন্ত সংস্কার ও প্রসস্থকরণ কাজে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। ২ কোটি ৮৬ লক্ষ টাকায় দুই গ্রুপে চার কিলেমিটার কাজের কার্যাদেশ পায় মেসার্স খন্দকার শাহিন আহম্মেদ নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কিন্তু কাজটি বাস্তবায়ন করছে এম আর এন্টার প্রাইজ।

অভিযোগ উঠেছে রাস্তার দুই পাশে ৩ফুট করে ৬ ফুট প্রসস্থকরণ কাজে আড়াই ফুট গভীর করে বালু ও খোয়া দিয়ে ভরাট করে কম্পপ্যাক্ট করার কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না।

ব্যাবহার করা হচ্ছে নিন্মমানের ইট ও খোয়া, এছাড়ার রাস্তার কাদামাটি অপসারন না করেই চালানো হচ্ছে কাজ। ৩০ জুন কাজ শেষ হওয়া নিয়েও শংসয় দেখা দিয়েছে।

কিছুদিনের মধ্যে সড়কে খানাখন্দ সৃষ্ঠি হয়ে ভোগান্তি বাড়বে বলে মনে করেন এলাকাবাসী। তবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা বলছেন ভিন্ন কথা।

এ ব্যাপারে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি জেলা এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী নাঈমা নাজনীন নাজ।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment