ডেস্ক রিপোর্ট: ঈদকে সামনে রেখে শাড়ি ও থ্রিপিছে নকশা তোলার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরের বিভিন্ন গ্রামের নারী-পুরুষেরা। একাজ করে অনেকেই হয়েছেন স্বাবলম্বি। আর ঘরের কাজের পাশাপাশি বাড়তি আয় করছেন গৃহিনীরা। এ শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে ন্যায্য মজুরি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছেন তারা।

কেউ করছেন শাড়ী ও থ্রিপিছে পুঁতি বসানোর কাজ, কেউবা ব্যস্ত নকশা তোলার কাজে। পোশাকে কারচুপির এ কাজ চলছে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরের শাহেদল, দাপুনিয়া, রহিমপুর ও লতিফপুরসহ বিভিন্ন গ্রামে। কারচুপির কাজ করে বেকারত্ব ঘুচিয়ে স্বাবলম্বি হয়েছেন অনেকে।

তবে পরিশ্রমের তুলনায় মজুরি অনেক কম বলে অভিযোগ কারিগরদের। আর ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে অবৈধভাবে আসা পোশাকের কারণে তাদের তৈরি পোশাক বাজার হারাচ্ছে।

প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা পেলে এখানে তৈরি পোশাক দেশের বাইরেও রপ্তানি করা সম্ভব বলে মনে করেন ব্যবসায়ীরা। আর প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে বিসিক শিল্প সহায়ক কেন্দ্র।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment