ঈদ উপলক্ষে কমলাপুর রেলস্টেশনে আজ দেয়া হয়েছে ১১ জুনের টিকেট। প্রাণান্তকর চেষ্টার পর কাঙ্খিত টিকেট হাতে পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত যাত্রীরা। এদিকে বাস কাউন্টারগুলোতে চিরায়ত ভিড়ের দেখা নেই। নানা ভোগান্তির কারণে সড়কপথে যাত্রীসংখ্যা কমে গেছে বলে দাবি পরিবহন সংশ্লিষ্টদের।

ট্রেনের টিকেটে পেতে শুক্রবার ইফতারের আগে কমলাপুর রেলস্টেশনে আসেন এই মানুষটি। ২২ ঘণ্টারও বেশি সময় অপেক্ষার পর মিলল কাঙ্খিত টিকিট। তাতেই বাধভাঙা উচ্ছ্বাস তার কণ্ঠে।

ইফতার-সেহরি- ঘুম সবই সারতে হয়েছে স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে। কারো রাত কেটেছে  পেপার বা বই পড়াসহ নানা কাজে। এবার ঈদে বিশেষ ট্রেন চালুর পাশাপাশি যাত্রীসেবায় নেয়া নানা পদক্ষেপের কথা জানালেন স্টেশন ম্যানেজার।

ট্রেনের টিকেটের জন্য প্রাণান্তকর কষ্টের বিপরীতে রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলোতে একেবারেই উল্টোচিত্র। খাঁ খাঁ করছে সব টিকেট কাউন্টার। বেহাল রাস্তা আর যানজটের ভাবনায় সড়কপথ এড়িয়ে চলার এ চেষ্টা যাত্রীদের।

ঈদযাত্রায় মহাসড়কগুলো যানজটমুক্ত রাখতে কর্তৃপক্ষের কাছে আহ্বান জনিয়েছেন যাত্রীরা।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment