গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ বা ফুটবল বিশ্বকাপে পছন্দের দল ছাড়াও যেকোন দলের সেরা খেলোয়াড় থাকেন আলোচনায়। তেমনই সময়ের তিন তারকা রোনালাদো, মেসি ও নেইমার। কিন্তু এর বাইরেও আছেন তারকা খেলোয়াড়, যারা পাদ-প্রদীপে আছেন ক্লাব ফুটবলসহ জাতীয় দলে।

ফুটবল বিশ্বকাপের প্রথম দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ের হারানো ঐতিহ্য পুনরুত্থানে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখছেন এডিনসন কাভানি ও লুইস সুয়ারেস। ক্লাব ফুটবলেও আলো ছড়াচ্ছেন এ দুই তারকা। রাশিয়া বিশ্বকাপে বড় ফ্যাক্টর হতে পারে এই জুটি।

সেরা হওয়ার তালিকায় রোনালদো, মেসি, নেইমারের পাশে আছেন ফ্রান্সের অ্যান্টোনি গ্রিজমান। অসাধারণ পারফরম্যান্সে আতলেতিকো মাদ্রিদকে এগিয়ে নিচ্ছেন। ফ্রান্সের বর্ষসেরা কিলিয়ান এমবাপ্পেও আছেন আলো ছড়ানোর অপেক্ষায়।

প্রিমিয়ার লিগের চলতি মৌসুমে সর্বোচ্চ গোল করে ইংল্যান্ডের সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন লিভারপুলের মোহামেদ সালাহ। রাশিয়া বিশ্বকাপে মাঠে নামবেন মিশরের হয়ে। অন্যদিকে, বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেনের আক্রমণের বড় ভরসা আলভারো মোরাতা। য়্যূভেন্তুস, রিয়াল মাদ্রিদ হয়ে এখন চেলসির হয়ে মাঠে নামেন ২৬ বছর বয়সী স্ট্রাইকার।

সব শেষ কনফেডারেশন্স কাপ জয়ে জার্মানির হয়ে আলো ছড়ান ২২ বছর বয়সী টিমো ওয়ার্নার। টুর্নামেন্টে গোল্ডেন বুট জয়ী এ তরুণ নিশ্চিতভাবেই বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের অন্যতম ভরসা।

দল হিসেবে বেলজিয়ামের খুব বেশি খ্যাতি না থাকলেও দলটির প্রধান অস্ত্র ইডেন হ্যাজার্ড আলো ছড়াচ্ছেন ক্লাব ফুটবলে। অন্যদিকে ২০১৫-১৬ মৌসুমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা টটেনহাম হটস্পারের হ্যারি কেনও আছেন সেরার তালিকায়।

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment