আগামী বাজেটে করপোরেট কর কমানোর দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।পাশাপাশি ব্যাক্তিশ্রেণির করমুক্ত আয়ের সীমা ৫০ হাজার বাড়িয়ে ৩ লাখ টাকা করার সুপারিশও করেছেন তারা। করপোরেট কর কমানো হলে বিনিয়োগ বাড়বে বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা। দুটি বিষয়ই সরকারের চিন্তাভাবনায় আছে বলে জানালেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।

ব্যাংক, শেয়ারবাজার, মোবাইল অপারেটর দেশে বর্তমানে সাতটি স্তরে করপোরেট কর আদায় করা হয়।এর মধ্যে সর্বোচ্চ  ৪৫ আর সর্বনিম্ন ২৫ শতাংশ। সাধারণ পর্যায়ে করমুক্ত আয়ের সীমা ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। নারী ও প্রবীণদের জন্য তিন লাখ,প্রতিবন্ধীদের জন্য ৩ লাখ ৭৫ হাজার ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের করমুক্ত আয়ের সীমা ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা।

করপোরেট কর কমানো হলে কমবে উৎপাদন খরচ, বাড়বে বিনিয়োগ। তাই করপোরেট করের হার কমিয়ে করমুক্ত আয়ের সীমা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

ব্যবসায়ীদের দাবিকে সমর্থন জানালেও, করপোরেট করের  বিষয়ে ধাপে ধাপে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের পরামর্শ দিয়েছেন অর্থনীতিবিদরা।

বিনিয়োগের স্বার্থে ব্যবসায়ীদের দাবি বিবেচনার আশ্বাস দিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি বিবেচনা করেই ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা হবে বলেও জানান তিনি।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment