দেশে ১৮ থেকে ৩০ বছর বয়সী, প্রায় ৭৪ শতাংশ নারী সাইবার অপরাধের শিকার। এদের মধ্যে ৩০ শতাংশ জানেন না আইনি ব্যবস্থা সম্পর্কে। আর উল্টো হয়রানির আশঙ্কায় হয়রানির তথ্য গোপন করেন ২৪ শতাংশ ভুক্তভোগী। বিশেষজ্ঞরা বলছেন জনসচেতনতা বাড়ানো আর আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমেই, সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ করা সম্ভব। ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে দেশের সাইবার অপরাধ নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদনে এসব কথা উঠে আসে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া অ্যাকাউন্টে অপপ্রচারের শিকার দেশের ১৪ শতাংশের বেশি নারী ও প্রায় ১৩ শতাংশ পুরুষ। আইডি হ্যাকিং ও তথ্য চুরির শিকার সাড়ে ১৩ শতাংশ পুরুষ ও প্রায় সোয়া ৫ শতাংশ নারী। ছবি বিকৃতির মাধ্যমে অনলাইনে অপ্রপ্রচারের শিকার ১২ দশমিক নারী ও পৌনে ৪ শতাংশ পুরুষ। অনলাইনে হুমকিপ্রাপ্ত নারীর হার পৌনে ১০ এবং পুরুষের সংখ্যা পৌনে ৪ শতাংশ।

বক্তারা জানান, হয়রানির শিকারদের মধ্যে ১৭ শতাংশ সামাজিক মর্যাদার কথা ভেবে আর ৫ শতাংশ মুখ খোলেন না প্রভাবশালীদের ভয়ে। এছাড়া অভিযোগ করেও বিচার পান না ৫৪ শতাংশ ভুক্তভোগী।

সাইবার অপরাধ দমনে অপরাধীদের তাৎক্ষণিক শাস্তি, আইনের কঠোর প্রয়োগ ও জনসচেনতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দেন বক্তারা।

৫১ দশমিক ১৩ শতাংশ নারী ও ৪৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ পুরুষ সাইবার অপরাধের শিকার বলে প্রতিবেদনে বলা হয়।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment