ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকার ইফতার মানেই যেন চকবাজারের লোভনীয় খাবারের আয়োজন। কালক্রমে এর কদর যেন বেড়েই চলছে।’ প্রতিবছরের মতো এবারও রমজানে চকবাজারে যে রকমারি মুখরোচক ইফতারির পসরা সাজিয়ে বসেছে বিক্রেতারা। দাম কিছুটা বেশি হলেও ক্রেতার কমতি ছিলনা এ বাজারে। কেউ খাদ্যে  ভেজাল দিলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন ঢাকার দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন।

‘বড় বাপের পোলায় খায়, ঠোঙ্গায় ভইরা লইয়া যায়’ পুরান ঢাকার চকবাজারের ইফতার বাজারের ইতিহাস ও ঐতিহ্য দীর্ঘদিনের। রোজাদারদের জন্য চকবাজার শাহি মসজিদের সামনের রাস্তার দুধারে বাহারি সব ইফতার সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বসেছেন বিক্রেতারা। সেখানে পাওয়া যাচ্ছে খাসির রান, সুতি কাবাব, জালি কাবাব, টিকা কাবাব, ডিম চপ,কবুতর-কোয়েলের রোস্টসহ নানা ধরনের ইফতার সামগ্রী।

মজাদার সব ইফতারির কিনতে রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এখানে ছুটে আসেন অনেকেই। বিক্রেতারা জানায়, বংশ পরম্পরায় দীর্ঘদিন ধরে এই জায়গায় ইফতারির ব্যবসা করছেন তারা। গত বছরের তুলনায় দাম কিছুটা বাড়তি বলেও জানান তারা।

প্রথম রমজানে রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী ইফতার বাজার পরিদর্শনে আসেন ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র। ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।

ব্যবসায়ীরা বাড়তি বললেও আগের বছরের তুলনা এবার ইফতার পণ্যের দাম কম বলে দাবি করলেন সাঈদ খোকন।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment