রিয়াল মাদ্রিদ আর বার্সেলোনা মুখোমুখি, এটি শুধু দু’টি দলের লড়াই নয়, বিশ্বের বেশিরভাগ ফুটবল প্রেমীদের দুইভাগ করে দেয়ার একটি ম্যাচ। ফুটবল বিশ্ব যাকে আলাদা নামে ডাকে; আত্মমর্যাদা, চির প্রতিদ্বন্দ্বিতা কিংবা ধুপদী এ লড়াইয়ের নাম এল ক্লাসিকো। বার্সার মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে বাংলাদেশ সময় রাত পৌণে একটায় শুরু হবে ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে জনপ্রিয় লড়াই এল ক্লাসিকো।

এল ক্লাসিকো ঘিরে টিভি সেটের সামনে হাজির হবে ফুটবল বিশ্বের কোটি কোটি দর্শক। ভাগ হবে দুই দু’টি। রিয়াল মাদ্রিদ নাকি বার্সেলোনা, কে হাসবে শেষ হাসি, তার জন্য অপেক্ষা অন্তত ৯০ মিনিট। বার্সেলোনার মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে হবে মৌসুমের শেষ এল ক্লাসিকো।

নিজেদের মাঠ বার্নাব্যুতে লিগের প্রথম লেগের লড়াইয়ে ৩-০ গোলের হারের ক্ষত নিয়ে প্রতিপক্ষের মাঠে অতিথি হবে রিয়াল মাদ্রিদ। শিরোপা হারালেও, প্রতিশোধ নিতে মুখিয়ে রোনালদো-বেল-বেনজেমারা।

চার ম্যাচ হাতে রেখে আগেই লা লিগা শিরোপা নিশ্চিত করেছে বার্সা। তারপরও এ ম্যাচ শুধু মর্যাদার লড়াই-ই নয়; অপরাজিত থেকে আসর শেষ করার স্বপ্ন মেসি-সুয়ারেসদের। সেইসঙ্গে, ইনিয়েস্তার শেষ এল ক্লাসিকো রাঙাতেও প্রস্তুত তারা।

১৯০২ সালের ১৩ মে হয় এল ক্লাসিকোর প্রথম মহারণ। রিয়াল-বার্সার ২৭০টি ধ্রুপদী ৯৯টিতে রিয়াল মাদ্রিদ ও ১১২টিতে জয়ী বার্সেলোনা। এই সময়ের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী তারকা মেসি-রোনালদোর দ্বৈরথও বাড়তি মাত্রা যোগায় এল ক্লাসিকোতে। দুই দলের লড়াইয়ে সবচেয়ে বেশি ২৫টি গোল করেছেন মেসি। অন্যদিকে আর একটি গোল করলেই ১৮টি গোল করে দ্বিতীয় সেরা ডি স্টেফেনোকে স্পর্শ করবেন রোনালদো।

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment