সংসদে নারী সংরক্ষিত আসনের মেয়াদ বাড়ছে আরও ২৫ বছর। সরকারের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানালেও, সরাসরি নির্বাচনের দাবি সংরক্ষিত আসনের এমপি ও নারী নেত্রীদের। আর সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলছেন, নারীদের ক্ষমতায়নে এ সংশোধনী জোরালো ভূমিকা রাখবে।

জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনেই মেয়াদ শেষ হবে সংরক্ষিত ৫০টি নারী আসনের। তবে রাজনীতিতে এখনও নারী-পুরুষের সমতা প্রতিষ্ঠিত না হওয়ায়, আসনগুলোর মেয়াদ ২০৪৩ সাল পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রিসভা। সংসদে উথাপন করা হয়েছে এ সংক্রান্ত বিলও।

এ পদক্ষেপ রাজনীতিতে নারীর অংশগ্রহণ ও সমতা সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন সংরক্ষিত নারী আসনের বর্তমান সাংসদরা। সরাসরি নির্বাচনের সুযোগ, সীমানা নির্ধারণসহ বিদ্যমান সমস্যার সমাধান না হলে, উদ্যোগটি ব্যর্থ হবে বলে মনে করেন নারী নেত্রীরা।

ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ মনে করেন, এ বিষয়ে সংবিধানে যে সংশোধনঅ আসছে তা নিয়ে অহেতুক বিতর্ক সৃষ্টি করা উচিত হবে না।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment